Activities 2015

Workshop on “In the Modi paradigm relevance of Security, Art, Culture and Religion between Bangladesh and India “, 26th January, 2015

Guest: Dr. Sanjay K Bhardwaj , professor, school of International Studies, Jawaharlal Nehru, University , New Delhi, India and  joint Secretary , Association of Scholars. Purpose: To discuss about the development relationship of India with South Asian countries during the paradigm of Narendra Modi

 

১৯৭৩ সালে যুদ্ধাপরাধী আইনের খসড়া পরিমার্জনকারী অটোভন ট্রিফটারের মৃত্যুতে স্মরণসভা

জুলাই- ৪, শনিবার, ২০১৫

আন্তর্জাতিক অপরাধ আইন, ১৯৭৩ – যার দ্বারা বর্তমানে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্যাল পরিচালিত হয় – এর একজন অন্যতম প্রধান বিদেশী খসড়া পরিমার্জনকারী প্রফেসর অটোভন ট্রিফটার গত ১লা জুন, ২০১৫ তারিখে ইন্তেকাল করেছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ হেরিটেজ ফাউন্ডেশন গত ৪ জুলাই, ২০১৫ তারিখে একটি স্মরণসভার আয়োজন করে। এই সভায় মুক্তিযুযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং আরো অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।  সভায় বক্তারা অটোভান ট্রিফটারের অবদানকে স্মরণ করেন। প্রসিকিউটর হায়দার আলী  বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের ধবংশাযোগ্য পরে মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগীতা করার জন্য যেসব মানুষ কাজ করেছেন, আগ্রহ প্রকাশ করেছেন অটোভন ট্রিফটার হলেন তাদের মধ্যে একজন। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ব্যাপারে অনেক ধরনের কাজই সম্পূর্ন হয়েছিল কিন্তু তার মধ্যে যে কাজটা সবচেয়ে গুরত্বপূর্ন ছিল সেটা করতে তিনি বিশেষ ভূমিকা রেখেছিলেন। মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক্ব বলেন, আমাদের তার প্রতি বিভিন্নভাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে হবে। আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশে স্বাধীণতা যুদ্ধে গণহত্যার জন্য যে মানবতাবিরোধী আইন ও বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে নানাভাবে আলোচনা এবং পর্যালোচনা হবে তখন তার নামটাও চলে আসবে। ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির বলেছেন, অটোভন ট্রিফটারেরসহ সেই সময় যে সকল লোক এই বিচার প্রক্রিয়া প্রণয়নে বিশেষ ভূমিকা রেখেছিল, দেশ বা দেশের বাইরে যেসব লোক আছে তাদের সবাইকে একটা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সংবর্ধনা দেওয়া উচিৎ। আমাদের দূর্ভাগ্য যে আমরা তাকে জীবদ্দশায় সম্মানিত করতে পারিনি কিন্তু এখন সবাইকে সম্মানিত করার মাধ্যমে বিশ্বের দরবারে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিষয়টিকে আমরা আরো সামনে নিয়ে আসতে পারব। মুক্তিযুযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পাশাপাশি তাদের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করতে আন্তর্জাতিক অপরাধ আইন-১৯৭৩ সংশোধনের আহ্বান জানিয়েছেন। তা না হলে সেই অর্থ দিয়ে তাদের উত্তরসূরিরা যা খুশি তাই করবে। এটা হতে দেয়া যায়না। তাদের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার জন্য যুদ্ধাপরাধ আইন সংশোধন করতে হবে ।

উল্লেখ্য বাংলাদেশ হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ওয়ালিউর রহমান, নুরেমবার্গ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর প্রফেসর জেসচেক, প্রফেসর অটোভন ট্রিফটার এবং প্রফেসর নিয়াল ম্যাক ডরম্যাট একসাথে যুদ্ধাপরাধী আইনের খসড়া পরিমার্জনে কাজ করেছিলেন। বাংলাদেশে যে গণহত্যা এবং গণহত্যার বিচারপ্রক্রিয়ার ঐতিহাসিক যে একটি পদপরিক্রমা অতিক্রম করেছে সেটার নেপথ্যে থেকে যে ভূমিকা পালন করেছে অটোভন ট্রিফটার তার কথা মানুষের মনে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। যে যুদ্ধপরাধ আইন দ্বারা  আজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  সফলতার সাথে মানবতা বিরোধীদের বিচার কার্য চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

 

Copyright © 2014 BHF- All rights reserved. Powered by: i-make IT Solution

User Login